12

কেন হবেন ভলান্টিয়ার

গতিশীল জীবনে আমাদের অনেকেরই ভলান্টিয়ার হিসেবে যুক্ত হওয়ার ফুসরত মিলে না। জীবনের ব্যক্তিকেন্দ্রিকতা থেকে বেরিয়ে এসে ভলান্টিয়ার হিসেবে কাজ করতে পারলে আমরা অনেকভাবেই উপকৃত হতে পারি।ভলান্টারিংয়ের মাধ্যমে আমরা যেমনকে অন্যকে সহায়তা করতে পারি সেভাবে নিজেকেও আরও উন্নত করে গড়ে তোলার সুযোগ পায়।

ভলায়ান্টরিংএর মাধ্যমে আমরা অন্যদের সাথে সম্পর্ক স্থাপন করতে পারি। ভলান্টিয়ারদের নানা ধরনের, নানা পেশার, নানা বয়সের মানুষের সাথে মেশার সুযোগ হয়। এতে করে আমরা নতুন নেটওয়ার্ক, নতুন বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে তুলতে পারি।একসাথে কাজ করার মাধ্যমে আমাদের বন্ধুত্বের সম্পর্কগুলোও আরও ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠে। যারা অন্তর্মুখী স্বভাবের তারা সামাজিক হয়ে উঠতে ভলান্টিয়ারিং গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করতে পারে।

ভলান্টারিয়ারিং আমাদের শারিরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী।স্টাডি মতে যারা ভলান্টারিয়ারিং এর সাথে যুক্ত থাকেন তাদের মৃত্যুহার তুলনামুলকভাবে কম।ভলান্টিয়ারিং করতে গিয়ে আমাদের প্রায়ই সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধিতে কাজ করতে হয়।যা আমাদের ব্যক্তিগত সচেতনতা বাড়াতেও সাহায্য করে।ভলান্টিয়ারিং আমাদের দুশ্চিন্তা,মানসিক চাপ,বিষণ্ণতা এসব কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করে।ভলান্টিয়ারিং করতে গিয়ে ব্যস্ততা, বিভিন্ন ধরনের কাজ, বিভিন্ন মানুষের সাথে মেশার মাধ্যমে আমরা বিষণ্ণতা থেকে বেরিয়ে আসতে পারি।ভলান্টারিয়ারিং এর মূল উদ্দেশ্য থাকে অন্যের সেবা করা। অন্যের উপকার করতে পারলে আমরা সবাইই মানসিকভাবে তৃপ্ত হই ।
ভলান্টিয়ারিং আমাদের ক্যারিয়ারে এগিয়ে যেতে সাহায্য করে।ভলন্টিয়ারিং এর মাধ্যমে আমাদের কমিউনিকেশন স্কিলের সাথে সাথে আরও নানা ধরনের স্কিল ডেভ্লপ হয়।নানা কাজ করতে গিয়ে আমরা আমাদের দক্ষতা অনুশীলনের মাধ্যমে আরও দক্ষ হয়ে উঠতে পারি।এছাড়াও ভলান্টিয়ারিং অরগানাইজেশনগুলো বিভিন্ন ধরনের ট্রেনিংও প্রদান করে থাকে।ভলান্টিয়ারিংএর মাধ্যমে আমরা আরও আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠতে পারি যা আমাদের অন্যদের চেয়ে এগিয়ে রাখে।ভলান্টিয়ারিং এর অভিজ্ঞতা সিভিতেও যুক্ত করা যায়।সামাজিক সংগঠনে ভলান্টিয়ারিং এর অভিজ্ঞতা চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানে গুরুত্ব সহকারে দেখা হয়।

ভলান্টিয়ারিংএর অভিজ্ঞতা আমাদের জীবনের পরিপূর্ণতা আনতে সাহায্য করে।ভলান্টিয়ারিং এর মাধ্যমে আমরা আমাদের আগ্রহ এবং প্যাশনের ক্ষেত্র সম্পর্কে জানতে পারি।ভলান্টিরিয়ারিং এর মাধ্যমে আমরা নতুন মানুষের সাথে মেশার মাধ্যমে নতুন নতুন অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারি।রুটিনবাঁধা জীবনের একঘেয়ে কাজ থেকে মুক্তির সুযোগ পাওয়া যায় ভলান্টিয়ারিং এর মাধ্যমে। তাই অনেকেই শখের বসে ভলান্টিয়ারিং কাজের সাথে যুক্ত হয়।

  • ইসরাত হক জেরিন
    জুনিয়র এক্সিকিউটিভ,
    কন্টেন্ট ডেভলপমেন্ট টীম
Tags: No tags

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *