12

একজন স্টিফেন হকিং ও তার বিখ্যাত কিছু উক্তি-

স্টিফেন হকিং বিশ্বের সেরা পদার্থবিজ্ঞানীদের একজন। বলা যায় কালোজয়ী বিজ্ঞানী। ২০১৮ সালের ১৪ মার্চ পৃথিবী থেকে বিদায় নিলেও এই পৃথিবীকে দিয়ে গেছেন অনেক কিছু। জীবনের ২১ বছরে “মোটর নিউরন” নামক এক জটিল রোগে যখন তার জীবন খুব সন্ধিক্ষণে তখন চিকিৎসক বলেছিলেন, মাত্র ২ বছর তিনি বাঁচবেন। অথচ চিকিৎসকদের ভবিষ্যতবাণীকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে,সারা বিশ্বকে অবাক করে ৫৫ বছর পৃথিবীর আলো বাতাস উপভোগ করেছেন তিনি। হয়তো স্বাভাবিক চলাফেরার শক্তি তার ছিল না,তবে ছিল প্রচন্ড মানসিক শক্তি আর যার জোরে তিনি এতটা বছর লড়াই করেছিলেন সেই রোগটির সাথে। মোটর নিউরন রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর বাকি জীবন কাটে হুইল চেয়ারে বসে,কথা বলেছেন যন্ত্রের সহায়তায় কম্পিউটার স্পিক সিন্থসাই জার অবস্থায়। মনের অফুরন্ত শক্তির জোরে নিজের গবেষণা কাজ চালিয়ে গেছেন আর বাকি সকল বিজ্ঞানীদের মতই। নিজের শারীরিক সীমাবদ্ধতা প্রসঙ্গে একবার তিনি বলেছিলেন, আমার কোন রোগ আছে তা আমি কখনও ভাবি না। চেষ্টা করি স্বাভাবিক জীবন কাটাতে। আমার কাজে বাধা সৃষ্টি করে এমন কোন কিছুকে আমি কখনও পাত্তাই দেই না।আমার যখন ২১ বছর বয়স তখনই আমার প্রত্যাশার সমাপ্তি। বাকি সবকিছুই আমার জন্য বোনাসস্বরূপ। যারা বুদ্ধিমত্তা নিয়ে গৌরব করেন তারাই জীবনে হেরে গেছেন। গত ৪৯ বছর আমার মৃত্যু নিয়ে নানা জল্পনা-কল্পনা চলেছে। তাই আমি আর মরতে ভয় অয়াই না। তবে এখনই মরতে চাই না। এখনও অনেক কাজ বাকি আমার।

১৯৯৮ সালে প্রকাশিত তার বিখ্যাত বই “A Brief History of Time : From the Big Bang to Black Holes” এ তিনি কিছু বিখ্যাত কথা বলে গেছেন-

১. জীবন এমন এক শক্তি যা আপনাকে পরিবর্তন করতে শেখায়

২. আপনার শারীরিক বাধা কখনও ভাল কাজে আপনার বাধা হতে পারে না।শারীরিক সীমাবদ্ধতার জন্য কখনও অনুতাপ করবেন না।

৩. মানুষ কথা বলেই সব থেকে বেশি সাফল্য অর্জন করে। তবে মানুষের ব্যর্থতার কারণও এই আলাপ-চারিতা।তাই কথাবার্তা চালিয়ে যাওয়া উচিত

৪. ক্রোধ মানুষের সবচেয়ে বড় শত্রু। তাই সফল হতে হলে ক্রোধকে নিয়ন্ত্রণ করা জরুরী বা নির্মুল করতে হবে।

৫. যদি আপনি সব সময় রাগান্বিত থাকেন এবং অভিযোগ করতে থাকেন, কেউ আপনার জন্য নিজের মূল্যবান সময়টুকু দিতে চাইবে না।

লিখাঃ
এ.এস.এম. জেবিন সাজ্জাদ
জুনিয়র এক্সিকিউটিভ
কন্টেন্ট ডেভেলপমেন্ট টিম

Tags: No tags

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *